বাড়িতে ফুচকা বানানোর সহজ রেসিপি

বাড়িতে ফুচকা বানানোর সহজ রেসিপি জেনে নিন

মুখরোচক মজার খাবার

ফুচকা নামটি শুনলেই যেনো অনেকের জিভে জল আসে। আমাদের দেশের ছেলে বুড়ো সকলেই ফুচকা খেতে পছন্দ করে! বাড়িতে বসে ফুচকা বানানোর রেসিপি জানলে আপনাকে আর কষ্ট করে বাহিরে গিয়ে ফুচকা খেতে হবে না! তাইতো আজ আপনাদের জন্য ফুচকা বানানোর সহজ রেসিপি নিয়ে হাজির হলাম।

আজ আমরা ফুচকা বানানো এবং ফুচকার জন্য মশলা বানানোও শিখবো! অনেকই মনে করেন যে; ফুচকা বানানো অনেক কঠিন কাজ। কিন্তু ফুচকা বানানো মোটেই কঠিন নয়! রান্না বান্না করার মত টুকটাক অভিজ্ঞতা থাকলেই আপনি ফুচকা বানাতে পারবেন। যেমন ধরুন; রুটি বেলা, ময়দা মাখানো, তেলে ভাজার মতো; সহজ বিষয়ে আপনার সামান্য জ্ঞান থাকলেই ফুচক বানানোর কাজ চালিয়ে নিতে পারবেন।

আমরা প্রথমেই ফুচকা বানানোর সমস্ত উপদানের নাম পরিমান ও রেসিপি জেনে নিব; এবং পরে ফুচকা ও ফুচকার জন্য তেঁতুল ও জিরা পানি বানানোর রেসিপি শিখবো।

১। বাড়িতে ফুচকা বানানোর সহজ রেসিপি:

ফুচকা বানানোর উপাদানের নাম ও পরিমান:

ফুচকা রেসিপির উপাদানউপাদানের পরিমান
১। আটাদেড় কাপ নিতে হবে।
২। লবণহাফ চা চামচ নিতে হবে।
৩। তালমাখনাহাফ চা চামচ নিতে হবে।
(তালমাখনা মুদি দোকানে না
পেলে, ভেষজ ঔষধের
দোকানে পাওয়া যাবে)
৪। তেলঢুবো তেলে ভাজার জন্য।
ফুচকা রেসিপির উপাদান

ফুচকা বানানোর নিয়ম:
প্রথমেই আটা ও তালমাখনা একটি পাত্রে ঢেলে মিশিয়ে নিতে হবে। এরপের, তাতে হাফ কাপ পানি ঢেলে মথে নিতে হবে! এমন ভাবে মথতে হবে যেনো রুটি বানানোর মতো শক্ত খামির তৈরি হয়।

এবার খামির দিয়ে রুটি বানাতে হবে। খুব সাবধানে সমান সমান আকারের ২ টি রুটি বেলে নিতে হবে; যেনো একটি অপরটির সমান হয়। এখন একটি রুটির উপরে অপরটি বসিয়ে; রুটি বেলে আরো বড় বানাতে হবে।

রুটি বেলা হলে, ফুচকা কেটে নেয়ার জন্য ফুচকার আকারের একটি টিনের ঢাকনা; কিংবা স্টিলের গ্লাস দিয়ে ফুচকা কেটে নিতে হবে। ফুচকা কাটার পরে; ভাজার জন্য একটি পাত্রে তেল নিয়ে ফুচকা ঢুবিয়ে ভাজতে হবে।

ফুচকা ভালো করে ভাজতে হবে। কেকনা, কম ভাজা ফুচকা নেতিয়ে যায়। ফুচকা ভাজা শেষ হলে; একটু ঠান্ডা হলেই, মুখবন্ধ টিনের কোটায় সংরক্ষন করে রাখতে হবে। টিনের পাত্র না পেলে, বড় ও মোটা পলিথিন ব্যাগেও ফুচকা রাখা যাবে।

অনেক ভাবেই ফুচকা খাওয়া যায়। যেমন; তেঁতুল পানি, তেঁতুল ও জিরা পানি, আলু ভর্তা, ডাল ভর্তা, ছোলার চাট ইত্যাদি। তবে; ফুচকার সাথে তেঁতুল ও জির পানি অনেক জনপ্রিয়! এখন আমরা তেঁতুল ও জিরা পানি বানানোর সহজ রেসিপি জেনে নিব।

আরো পড়ুন-
সহজে কেক পিঠা বিস্কুট বানানোর রেসিপি
১৩ রকমের পুডিং রেসিপি
বাড়িতে জন্মদিনের কেক বানানোর রেসিপি
রান্না শিক্ষার pdf বই

২। ফুচকার জন্য তেঁতুল ও জিরা পানি রেসিপি:

তেঁতুল ও জিরা পানি বানানোর রেসিপির উপাদান:

  • তেঁতুলের মাড় নিতে হবে ২ টেবিল চামচ
  • ভাজা জিরার গুড়ো ১ টেবিল চামচ
  • ২ টেবিল চামচ চিনি নিতে হবে
  • সামান্য মরিচের গুড়ো
  • স্বাদ মতো লবণ নিতে হবে
  • পানি ২ কাপ

ফুচকার জন্য তেঁতুল ও জিরা পানি বানানোর নিয়ম:
একটি পাত্রে তেঁতুলের মাড় ঢেলে তাতে ২ কাপ ঠান্ডা পানি মেশাতে হবে। চিনি ঢেলে চিনি ভালোভাবে গলিয়ে নিতে হবে! এরপরে, তাতে জিরার গুড়া, মরিচের গুড়া ও লবণ দিয়ে মিশিয়ে নিতে হবে। তেঁতুল পানির স্বাদ আরো বাড়িয়ে নিতে চাইলে সামন্য বীট লবণ ও পুদিনা পাতা বাটাও দেয়া যেতে পারে! ফুচকা ফুটো করে এই ফুচকার মশলা ফুচকার মধ্যে দিয়ে ফুচকা খাওয়ার জন্য পরিবেশন করতে হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *